‘বিএসএফের আমি শাস্তি চাই’: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি : চোপড়ায় ৪ শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় রাজ্য বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিএসএফের শাস্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠেন। বৃহস্পতিবার রাজ্য বাজেটের জবাবি ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএসএফের আমি শাস্তি চাই, যাদের কারণে চারটি শিশু মারা গেল’।

সাম্প্রতিক সময়ে মমতাকে বিএসএফকে নিশানা করে গলা ফাটাতে দেখা গিয়েছে। প্রশাসনিক সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে বলেছেন, বিএসএফের কাছ থেকে কোনও কার্ড নেবেন না। কার্ড নিলে এনআরসির আওতায় পরে যাবেন। এমনকি সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে যদি কোনও অভিযোগ থাকে , সেক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী সভামঞ্চ থেকে বাহিনীর বিরুদ্ধে এফআইআর করার বার্তাও রেখেছেন। যদিও, সীমান্ত রক্ষী বাহিনী এনআরসি নিয়ে মমতার দাবিকে খণ্ডন করেছে। চোপড়ায় শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় বিধানসভায় মমতা এদিনও সীমান্ত পাহারায় থাকা ‘ফাস্ট লাইন অফ ডিফেন্স’কে কাঠগড়ায় তুলে বলেন, ‘আমি এই ঘটনাকে ধিক্কার জানাচ্ছি। বিএসএফের কাজ কি? সীমান্ত পাহারা দেওয়া। শিশুদের জীবনের কি কোনও দাম নেই। আমি পুলিশ প্রশাসনকে বলছি কড়া ব্যবস্থা নিতে’। এদিনও মুখ্যমন্ত্রী একইভাবে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে মামলা করার ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন চোপড়া কাণ্ডে।

বৃহস্পতিবারই চোপড়া ইস্যুতে তৃণমূলের ৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে স্মারকলিপি জমা দেয়। প্রতিনিধি দলের দাবি, রাজ্যপাল চোপড়ায় গিয়ে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখুন। বিএসএফকে নিশানা করে মমতা এদিন এককক্ষ বিশিষ্ট সভায় দাঁড়িয়ে বলেন, ‘বিজেপির হয়ে ক্যাম্প করছে বিএসএফ। একইসঙ্গে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগও তোলেন মমতা। অভিযোগ, এলাকায় এলাকায় গিয়ে গেরুয়া প্যাকেটে জিনিস বিতরণ করছে বিএসএফ। শুধু মৌখিক অভিযোগ নয়, রীতিমতো ছবি সহ প্রমাণ দাখিল করেন বিধানসভায়।

বিধানসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বিএসএফ’র কাজ সীমান্ত রক্ষা করা, বিজেপির হয়ে ক্যাম্প করা নয়’। প্রসঙ্গত, জেসিবি দিয়ে মাটি খোঁড়ার সময়ে চাপা পড়ে মৃত্যু হয় ৪ শিশুর। এই ঘটনায় বিএসএফের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *