সন্দেশখালিকাণ্ডে মিনাখাঁর এসডিপিও অফিসের সিসিটিভি ফুটেজ তলব সিবিআইয়ের

Read Time:4 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি:সন্দেশখালিকাণ্ডের তদন্তে এবার এসডিপিও-র বাড়িতে সিবিআই।মিনাখাঁর এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খানের বাড়িতে সিবিআই।নোটিসের কপি নিয়ে মিনাখাঁর এসডিপিও-র দফতরে কেন্দ্রীয় এজেন্সি।ইডির ওপর হামলার মামলার তদন্তের এসডিপিও-র দফতরে সিবিআই। ৫ জানুয়ারি থেকে কারা এসেছিল এসডিপিও দফতরে? জানতে এসডিপিও দফতরের সিসিটিভি ফুটেজ তলব, সিবিআই সূত্রে এমনটাই খবর।

ইডির ওপর হামলার ঘটনার তদন্তে এই প্রথম কোনও পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে কথা বললেন সিবিআইয়ের আধিকারিকরা৷ বুধবার রাতে প্রথমে মিনাখাঁর এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খানের দফতরে যান কেন্দ্রীয় এসেন্সির আধিকারিকরা৷ পরে সেখান থেকে মিনাখাঁয় এসডিপিও-র বাড়িতে যান৷ এদিন মিনাখাঁর এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খানকে নোটিশ দিয়ে বেশ কিছু সিসিটিভি ফুটেজ চাওয়া হয়েছে৷ প্রায় ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট সেখানে ছিলেন সিবিআই আধিকারিকরা৷

সিআইডি-ও শেখ শাহজাহানের কোনও মোবাইল হাতে পায়নি বলেই দাবি করেছে৷ আর এই প্রেক্ষাপটে বিস্ফোরক অভিযোগ করেছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ এক্স হ‍্যান্ডেলে শুভেন্দু দাবি করেন, “যখন শেখ শাহজাহান মমতা পুলিশের আশ্রয়ে ছিল, তার ‘লোক দেখানো’ গ্রেফতারির আগে ‘আমিনুল’ নামে এক মমতা পুলিশ অফিসার শাহজাহানের আইফোন বাজেয়াপ্ত করে তাঁর ঊর্ধ্বতন অফিসারদের কাছে হস্তান্তর করেন৷” পাল্টা পুলিশের তরফে, শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগের স্ক্রিনশট পোস্ট করে এক্স হ‍্যন্ডেলে লেখা হয়, “এই অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা৷” কোনও খারাপ উদ্দেশ্যে পুলিশকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এটি করা হয়েছে৷ এই মানহানিকর ও ভিত্তিহীন অভিযোগের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

এদিকে, নদিয়ায় একটি রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার পর বুধবার রাতে এনিয়ে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “সিবিআই সঠিক জায়গাতেই গিয়েছে৷ ওর কাছেই দু’টি আইফোন রাখা আছে৷ সেটা দিয়েই শাহজাহান এদিক-সেদিক যোগাযোগ করত৷ দেরিতে হলেও একদম ঠিক জায়গায় গিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা৷”

সূত্রের খবর, ৫ জানুয়ারি ইডির ওপর হামলার দিন থেকে এখনও পর্যন্ত মিনাখাঁ-র এসডিপিও দফতরে ঠিক কারা কারা এসেছিলেন? তা জানতে সংশ্লিষ্ট দফতরের সিসিটিভি ফুটেজ তলব করেছে সিবিআই ৷ শেখ শাহজাহানকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার পর সিবিআইয়ের একটি সূত্র দাবি করেছিল, শেখ শাহজাহানের দু’টি মোবাইল ফোন এখনও হাতে পাননি তাঁরা ৷ যদিও এনিয়ে বসিরহাট জেলা পুলিশের তরফে দাবি করা হয়, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সন্দেশখালি কাণ্ডের ‘মাস্টারমাইন্ড’ শেখ শাহজাহানকে গ্রেফতারির সময় তাঁরাও কোনও মোবাইল ফোন পাননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *