রামলালার প্রাণপ্রতিষ্ঠা দিনে রাজ্যের একাংশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ঘিরে অসন্তোষ

Read Time:5 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি :অযোধ্যায় রামলালার প্রাণপ্রতিষ্ঠা দিনে রাজ্যের একাংশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপরে আংশিক প্রভাব এসে পরল। বি আর সিংহ হাসপাতাল এবং জোকার ইএসআই হাসপাতালে সকাল থেকেই আউটডোর বন্ধ থাকার অভিযোগ সামনে আসল।রাম পুজোর প্রভাব দেখা গেল শহরের কিছু বেসরকারি হাসপাতালেও। সল্টলেকের আমরি হাসপাতাল, অ্যাপোলো হাসপাতাল, মেডিকা হাসপাতালের মন্দিরে রামের পুজো হয় বলে খবর।

সকাল থেকেই রাম পুজোর আয়োজন করা হয়েছিল কলকাতার বিভিন্ন বেসরকারি ও কেন্দ্রীয় সরকার পরিচালিত হাসপাতালের স্থায়ী মন্দিরগুলিতে। মন্দিরে এনে রাখা হয়েছিল রামের ছবি। তাতেই মালা পরিয়ে, পুরোহিত ডেকে পুজোর আয়োজন করা হয়েছিল। অভিযোগ উঠেছে, রামের পুজো নিয়ে ব্যস্ত থাকায় চিকিৎসকদের অনেকেই ঠিক সময়ে আউটডোর এবং অন্তর্বিভাগে হাজির হননি। দেরি হয়েছে অস্ত্রোপচারেও এমন অভিযোগও উঠেছে। যদিও এই অভিযোগকে ‘অপপ্রচার’ বলে দাবি করা হয়েছে।

সোমবার রামমন্সির উদ্বোধনের দিনে জোকার ইএসআই হাসপাতালের বহির্বিভাগে পরিষেবা বন্ধ থাকায় রোগীর চাপ উপছে পরেছিল জরুরি বিভাগে। অভিযোগ, হাসপাতালে বন্ধ রাখা হয়েছিল প্রশাসনিক কাজকর্মও। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে ওই হাসপাতালের সুপার সঞ্জয় কেশকরের দাবি, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ মেনে দুপুর আড়াইটে পর্যন্ত হাসপাতালের অফিস বন্ধ ছিল। কিন্তু বহির্বিভাগ ও অন্তর্বিভাগে পরিষেবা সচল ছিল। যে সমস্ত চিকিৎসক, পড়ুয়া ও কর্মী পুজোর আয়োজন করেছিলেন, তাঁরা ঠিক সময়ে রোগীদের পরিষেবাও দিয়েছেন।’

অন্যদিকে, বি আর সিংহ হাসপাতালে রেল বোর্ডের নির্দেশে সমস্ত বহির্বিভাগের পরিষেবা এ দিন দুপুর আড়াইটে থেকে শুরু হওয়ার বিজ্ঞপ্তি সকালেই শিয়ালদহে পূর্ব রেলের সুপার স্পেশ্যালিটি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে টাঙিয়ে দেওয়া হয়। এর জেরে জেলা থেকে ডাক্তার দেখাতে আসা অনেক রোগীকেই পরিষেবা না পেয়ে ফিরে যেতে হয়েছে বলে অভিযোগ সামনে এসেছে। অনেকে আবার দুপুর পর্যন্ত অপেক্ষা করেছেন। সল্টলেকের আমরি হাসপাতালের চিকিৎসক তথা বিজেপির চিকিৎসক সেলের পশ্চিমবঙ্গ শাখার আহ্বায়ক শারদ্বত মুখোপাধ্যায় রাম দিনে পুজো উপলক্ষ্যে পাজামা-পাঞ্জাবি ও জহর কোট পরে পুজো শেষে ওই পোশাকেই রোগী দেখলেন। তিনি বলেন, ‘কোনও রকম পরিষেবা বন্ধ না রেখে অন্য চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের উপস্থিতিতে পুজো হল। সনাতন ধর্ম আমাদের সকল ধর্মকে নিয়ে চলতে শিখিয়েছে। তা হলে রামের পুজোয় আপত্তি কোথায়?’

Glimpses of Pran Pratishtha ceremony of Shree Ram Janmaboomi Temple in Ayodhya, Uttar Pradesh on January 22, 2024. PM presents on the occasion.

অ্যাপোলো হাসপাতালের পুজোর মুখ্য আয়োজক তথা চিকিৎসক তন্ময় মুখোপাধ্যায়। ১২টা ১০ মিনিটে পুজো শুরুর পরে ঘট হাতে রামের ছবি প্রদক্ষিণ করে তা পুজোর জায়গায় এনে বসান। আবার পুরোহিত মন্ত্রোচ্চারণ করার সময়ে তিনি-সহ আরও অনেকেই বসে থাকলেন রামের ছবির সামনে। চিকিৎসক তন্ময় মুখোপাধ্যায়ের কথায়, ‘চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা যাঁরা যেমন সময় পেয়েছেন, সেই মতো এসে রামের পুজোয় অংশ নিয়েছেন। তা বলে রোগী পরিষেবা কোনও ভাবেই ব্যাহত হয়নি।’ মেডিকা হাসপাতালের মন্দিরেও এ দিন রামের পুজো হয় বলে খবর। হাসপাতালের যুগ্ম অধিকর্তা অয়নাভ দেবগুপ্ত বলেন, ‘ওই মন্দিরে জগন্নাথের পুজো হয়। অন্য কিছু আমার জানা নেই।’ পুজোর শেষে কোথাও মিষ্টি বা কুচো ফল, বাতাসা, নারকেল কুচি বিলি করা হয়। চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি সেই প্রসাদ পেয়েছেন মন্দিরে পুজো দেখতে আসা রোগীর পরিজনেরাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *