Read Time:4 Minute

সঙ্গীতজগতে ভারতের জয়জয়কার, পাঁচ ভারতীয়র ঝুলিতে এল গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডস

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি : বেস্ট গ্লোবাল মিউজিক অ্যালবাম ‘দিস মোমেন্ট’ জিতে নিল গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড ৷ খুশির উচ্ছ্বাস ফিউশন ব্র্যান্ড শক্তির সদস্য জন ম্যাকলাফলিন, জাকির হুসেন, শঙ্কর মহাদেবন, ভি সেলভাগনেশ ও গণেশ রাজাগোপালনের মধ্যে ৷মঞ্চে পুরস্কার নিতে ওঠেন শঙ্কর মহাদেবন, রাজাগোপালন ও সেলভাগনেশ ৷ শঙ্কর এদিন হাতে পুরস্কার নিয়ে জানান তিনি মিস করছেন জন ম্যাকলাফলিনকে ৷

অন্যদিকে জাকির হুসেন সেই সময় স্টেজে উঠতে পারেননি ৷ কারণ তখন তিনি ছিলেন ব্যাকস্টেজে আর একটি গ্র্যামি পুরস্কার হাতে নিয়ে ৷ শঙ্কর বলেন, “আমরা তোমাকে মিস করছি জনজি, জাকির হুসেন ৷ উনি আজ আরও একটি পুরস্কার জিতেছেন ৷ ধন্যবাদ ভগবান, পরিবার, বন্ধু ও ভারতের সকলকে ৷ ভারতীয় হিসাবে আমরা গর্বিত ৷” পাশাপাশি শঙ্কর তাঁর এই জয় উৎসর্গ করেছেন তাঁর স্ত্রী সঙ্গীতাকে ৷ অন্যদিকে রাজাগোপালান ধন্যবাদ জানিয়েছেন রেকর্ডিং অ্যাকাডেমির পরিচয় সকলের কাছে পৌঁছে যাওয়ার জন্য ৷ জাকির হুসেন এদিনের অনুষ্ঠানে আরও দুটি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছেন ৷ একটি ‘পাশতো’র জন্য সেরা গ্লোবাল মিউজিক পারফরম্যান্স হিসাবে এবং অন্যটি বেস্ট কনটেম্পোরারি ইন্সট্রুমেন্টাল অ্যালবাম ‘অ্যাজ উই স্পিক’-এর জন্য ৷ এই অ্যালবামের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন আমেরিকান ব্যাঞ্জো বাদক বেলা ফ্লেক এবং আমেরিকান বেসিস্ট এডগার মেয়ার ও ভারতীয় বংশীবাদক রাকেশ চৌরাসিয়া, তিনি কিংবদন্তি হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার ভাগ্নে ৷ দু’বার গ্র্যামি পুরস্কার বিজেতা রিকি কেজ এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৷ বলেন, ‘আজকের এই মঞ্চ অর্থাৎ ২০২৪ সালের গ্র্যামির মঞ্চ ভারতের জন্য, এটা সত্যিই আনন্দদায়ক’৷

রিকি কেজ বলেন ‘গ্র্যামির এই বছরটা ভারতীয় সঙ্গীতের জন্য ৷ রাকেশ চৌরাসিয়া, শঙ্কর মহাদেবন, গণেশ রাজাগোপালন, সেলভাগনেশ বিনয়াক্রম ও উস্তাদ জাকির হুসেন… ভারতের প্রত্যেক শিল্পী আন্তর্জাতিক মঞ্চে জ্বলজ্বল করছেন ৷ একটা বছরে পাঁচ ভারতীয় গ্র্যামি পুরস্কার জিতে নিলেন, যা শিহরণ জাগানো ঘটনা’৷ সোশাল মিডিয়ায় তিনি লেখেন, ‘দ্য লিভিং লেজেন্ড জাকির হুসেন এক রাতে জিতেছেন তিনটি গ্র্যামি পুরস্কার ৷ অন্যদিকে, রাকেশ চৌরাসিয়া জিতেছেন দুটি গ্র্যামি পুরস্কার ৷ গ্র্যামির মঞ্চে এই বছরটা ভারতের জন্য সত্যিই অসাধারণ ৷ আমি সত্যিই এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি’ ৷প্রসঙ্গত, ব্রিটিশ গিটারিস্ট জন ম্যাকলাফলিন ১৯৭৩ সালে ফিউশন ব্যান্ড ‘শক্তি’র প্রতিষ্ঠা করেন ৷ তাঁর সঙ্গে ছিলেন ভারতীয় বেহালাবাদক এল শঙ্কর, পারকিউশনিস্ট টিএইচ বিনয়ক্রম (সেলভাগণেশ বিনয়ক্রমের বাবা) ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *