সংরক্ষণ ইস্যুতে নেহেরুর চিঠি হাতিয়ার মোদীর

Read Time:2 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি :শিয়রে লোকসভা নির্বাচন। এই আবহে সংরক্ষণ ইস্যুতে ঝড় উঠল সংসদে। কংগ্রেস এই ইস্যুতে সরব হতেই রাজ্যসভায় রাষ্ট্রপতির ধন্যবাদ সূচক বক্তব্যে পেশের সময় কার্যত কংগ্রেসকে সংরক্ষণ ইস্যুতে পাল্টা জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কংগ্রেসকে জবাব দিতে গিয়ে তুলে ধরলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর লেখা তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রীদের প্রতি একটি চিঠি। ওঁই চিঠিকে হাতিয়ার করেই সংরক্ষই ইস্যুতে কংগ্রেসকে জোরালো তোপ দেন মোদী।

চিঠিটি রাজ্যসভায় পাঠ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চিঠিতে সাফ বলা হয়েছে, দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী সমস্ত ধরণের সংরক্ষণের বিরোধী ছিলেন। মোদী বলেন, নেহরুর বার্তা ছিল, বিশেষত পরিষেবার ক্ষেত্রে সংরক্ষণের বিরোধী ছিলেন নেহরু, কারণ এটি সরকারি কাজের ক্ষেত্রে খারাপ প্রভাব ফেলে। মোদী তাঁর ভাষণে চিঠি নিয়ে বলেন,’আমি এর অনুবাদ পড়ছি – ‘আমি যেকোন ধরনের সংরক্ষণ অপছন্দ করি, বিশেষ করে পরিষেবাগুলিতে। আমি দৃঢ়ভাবে এমন যেকোনও কিছুর বিরুদ্ধে যা অদক্ষতা এবং দ্বিতীয় মানের দিকে কোনও কিছু মানকে নিয়ে যায়’।

মোদী তোপ দেগে বলেন, ‘তাই আমি বলি যে তারা জন্মসূত্রে এর (সংরক্ষণের) বিরোধী… সরকার যদি সেই সময়ে তাদের নিয়োগ করত এবং সময়ে সময়ে পদোন্নতি দিত, তাহলে তাঁরা আজ এখানে থাকতেন।’ একই সঙ্গে দেশের প্রধানমন্ত্রী বলেন,’কংগ্রেস ক্ষমতার জন্য গণতন্ত্রকে শ্বাসরোধ করে এবং গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারগুলোকে বরখাস্ত করে।’ সুর চড়িয়ে মোদী বলেন, ‘ কংগ্রেস দলিত, পিছিয়ে পড়া, আদিবাসীদের বিরুদ্ধে ছিল এবং বাবাসাহেব আম্বেদকর না থাকলে তাঁরা কোনও সংরক্ষণ পেতেন না’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *