সন্দেশখালিতে ‘মহিলাদের ওপর কোনও অত্যাচার হয়নি’ বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রায় দু’মাস ধরে ক্ষোভের আগুনে জ্বলতে থাকা সন্দেশখালিতে “মহিলাদের ওপর কোনও অত্যাচার হয়নি। অত্যাচারের কোনও প্রমাণ নেই” তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের এমনই বিস্ফোরক দাবি ঘিরে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে সৌগত রায়কে সন্দেশখালির নারী নির্যাতন নিয়ে বলতে শোনা গিয়েছে।

ভুরি ভুরি অভিযোগ। বহিস্কৃত তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ, উত্তম সর্দার, শিবু হাজরা এবং শাহজাহানের ভাই মহম্মদ সিরাজউদ্দিনকে ঘিরে। জমি লুঠ থেকে শুরু করে চাষের জমিতে ভেড়ি বানানো, কাজ করিয়ে ন্যায্য মজুরি না দেওয়া সহ ধর্ষণের অভিযোগ সামনে এসেছে। রাজ্য সরকার জমিহারাদের জমি ফেরতের ব্যবস্থা করেছে। বিডিও সন্দেশখালি নিজে মুখেই স্বীকার করেছেন ৪০০ বেশি অভিযোগ তাঁদের কাছে জমা পরেছে। ১০০ কিছু বেশি জমি ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে জমির প্রকৃত মালিকদের। সঙ্গে বসিরহাট পুলিশ জেলা থেকে অস্থায়ী অভিযোগ গ্রহণ কেন্দ্রের মাধ্যমে পুলিশ অভিযোগ নেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। আর শাসক দলের বর্ষীয়ান সাংসদের গলায় শোনা গেল ভিন্ন সুর, অত্যাচারের কোনও প্রমাণ নেই।

দমদমের সাংসদ বলেন, “সন্দেশখালিতে মহিলাদের ওপর অত্যাচারের কোনও ঘটনা ঘটেনি। ঘটলে প্রমাণ থাকত। যদি কিছু ঘটেও থাকে, সেক্ষেত্রে মমতার পুলিশ গ্রেফতার করেছে। শাহজাহান, শিবু, উত্তমদের রাজ্য পুলিশই গ্রেফতার করেছে। সিবিআই বা ইডি নয়।” সৌগত রায়ের এই দাবি নিয়ে চলছে জোর চর্চা। সিপিআই(এম) নেতা সুজন চক্রবর্তীর কটাক্ষ, “অধ্যাপক সৌগত রায় নারদ কাণ্ডে হাতে টাকা নিয়ে থ্যাঙ্ক ইউ বলেছিলেন। দুষ্কৃতীরা তৃণমূলের, কিছু বললে ওরা ওকে বিপদে ফেলবে, তাই উনি দুষ্কৃতিদের হয়ে কথা বলছেন।” বিজেপি নেতা সজল ঘোষ খোঁচা মেরে বলেন, “দলের ভেতরেই অনেকে চাইছেন না সৌগতবাবু ফের সাংসদ হন। কিন্তু প্রার্থী পদটা ওঁর জরুরি, তাই আবার তোষামোদ শুরু করেছেন।”

এর আগে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সন্দেশখালি ইস্যুতে মুখ খুলেছিলেন সাংসদ। গোটা ঘটনাই সংবাদমাধ্যমের তৈরি বলে দাবি করেছিলেন। এবার আরও একধাপ এগিয়ে নারী নির্যাতনের অভিযোগই ভিত্তিহীন বলে দাবি তৃণমূল সাংসদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *