জানেন মুলো খেলে কি কি উপকার পাবেন?

Read Time:3 Minute

ঋতুপর্ণা পাত্র : শীতকালে অনেকেই মুড়ি কিংবা স্যালাডে মুলো খেতে পছন্দ করেন। আবার অনেকেই মুলো দেখলে নাক সিঁটকান। ভয় পান খেতে, ভাবেন মুলো খেলে পেটে গ্যাস হবে। এই মরসুমে কাঁচা মুলো খাওয়ার মজাই আলাদা। আমরা অনেকেই হয়তো মুলো খাওয়ার স্বাস্থ্যকর উপকারিতা সম্বন্ধে বিশেষ জানি না। বিশেষজ্ঞদের মতে, মুলোতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেল রয়েছে। শীতকালে নিয়মিত মুলো খেলে তা আপনার দৈনিক ভিটামিনের চাহিদার অনেকটাই পূরণ করতে পারে।

পেট ব্যথা এবং গ্যাস এড়াতে জেনে নিন খালি পেটে বা রাতের খাবারে কখন মুলো খাওয়া উচিত নয়। সঠিক কথা হল খাবারের সাথে মুলো খাওয়া উচিত নয়। হ্যাঁ, রান্না করা খাবারের সঙ্গে সালাদ আকারে কাঁচা সবজি খাওয়া ঠিক নয়। এতে পাচনতন্ত্রের ওপর চাপ পড়ে, সেই সঙ্গে খাবার হজম করাও কঠিন হয়ে পড়ে।আপনার সকালের ব্রেকফাস্টের পর মুলো খাওয়া উচিত। এছাড়া দুপুরের খাবার বা মধ্যাহ্নভোজ এবং রাতের খাবারের মধ্যে যে স্ন্যাক্স টাইম হয়, আপনার এই সময়ে মুলো খাওয়া উচিত। এই সময়ে মুলো খেলে এর হজম ভালো হবে এবং আপনার শরীর এর সব পুষ্টি পাবে।

মুলো খাওয়ার সময় এর সাথে অন্যান্য কাঁচা সবজি যেমন শসা, টমেটো, গাজর ইত্যাদি মিশিয়ে নিন। এতে করে স্বাদও বাড়বে এবং পুষ্টির পরিমাণও বাড়বে।মুলোখাওয়ার সময় খেয়াল রাখবেন এটি যেন খুব বেশি পাকা না হয় , যেন সালাড মুলো হয়। অর্থাৎ পাতলা, ছোট এবং স্বাদে মিষ্টি।মুলো খাওয়ার পর এক জায়গায় না বসে একটু হাঁটাহাঁটি করুন, কারণ মুলো হজম হতে সময় নেয়। এক জায়গায় বসে থাকলে এর হজমের সময় বেড়ে যায়।এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে মুলো খাবেন, পেট ব্যথা, গ্যাসের সমস্যায় ভুগবেন না। এছাড়াও আপনি মুলোর স্বাদ উপভোগ করতে সক্ষম হবেন।

শীতকালে প্রতিদিন মুলো খেলে সর্দি-কাশির সমস্যা এড়ানো যায়।মুলো খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।
মুলো পাচনতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে এবং হজমের উন্নতির জন্য উপকারী।মুলো রক্তে শর্করার পরিমাণও অনেকাংশে কমিয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *