‘পিন্টুবাবু কো গুস্‌সা কিঁউ আতা হ্যায়’, বিজেপিকে নিয়ে ব্যঙ্গ মমতার

Read Time:4 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি: বাংলায় কেন্দ্রীয় প্রকল্প নিয়ে ভুরি ভুরি অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। সুকান্ত -শুভেন্দুরা পালা করে অভিযোগ তুলেই ক্ষান্ত হননি। তাঁরা দিল্লি ছুটে গিয়ে লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন। এর জেরে রাজ্যে বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এসেছে অভিযোগ খতিয়ে দেখতে। যা নিয়ে তৃণমূল-বিজেপি তরজা চরমে। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। তাঁর আগে বৃহস্পতিবার ৭ মার্চ মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে মিছিল শেষে মমতাকে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল ইস্যুতে সোচ্চার হতে দেখা গিয়েছে।এবার এই ইস্যুতে মুখ খুললেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, “বাংলায় ৪৫৪টা কেন্দ্রীয় দল এসেছে। আপানাদের যত রাগ, সব বাংলার ওপর?”

এদিন বিজেপিকে ‘পিন্টুবাবু’ বলে ব্যঙ্গ করে তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, “পিন্টুবাবু কো গুস্‌সা কিঁউ আতা হ্যায়?” সম্প্রতি সন্দেশখালি কাণ্ডে রাজ্য থেকে দেশ উত্তাল হয়েছে। সন্দেশখালি এখন লোকসভা নির্বাচনের আগে ‘এপিক সেন্টার’ হয়ে উঠেছে শুভেন্দু অধিকারীর ভাষায়। কেন্দ্রের জাতীয় মহিলা কমিশন থেকে এসসি কমিশন, দিল্লির ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি টিম দিল্লি থেকে সন্দেশখালি ছুটে এসেছে। এসসি কমিশন একধাপ এগিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করেছে। এইসব নিয়ে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। গোটা দেশ দেখেছে মণিপুর জ্বলছে, জাতি দাঙ্গার দহনে। এখনও ধিক ধিক করে জ্বলছে মণিপুর। জাতি হিংসার শিকার হয়ে মণিপুরে এক মহিলার নগ্ন প্যারেড প্রকাশ্যে এসতেই লজ্জায় গোটা দেশের মাথা হেট হয়ে গিয়েছে। এই প্রেক্ষিতেই মমতা এদিন বলেন, ‘মণিপুরে যখন নগ্ন ভাবে মহিলাদের হাঁটানো হল, তখন ক’টা দল গিয়েছিল। হাথরসে ক’টা কেন্দ্রীয় দল গিয়েছিল?”

মিছিল শেষে মমতা বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে ডবল ইঞ্জিন সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘আগে নিজের দিকে তাকিয়ে দেখুন আপনার রাজ্যগুলি কী করছে? হাথরস, উন্নাও কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে বিজেপি জনপ্রতিনিধিদের। নাম সামনে আসতে প্রতিবাদে গর্জে ওঠে গোটা দেশ। এমনকি হাথরসের নির্যাতিতার দেহ রাতের অন্ধকারে দাহ করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে যোগী আদিত্যনাথের পুলিশের বিরুদ্ধে। বিজেপি শাসিত উত্তর প্রদেশ রাজ্যে নারী নির্যাতনের একের পর এক ঘটনা সামনে আসার পরেও একবারের জন্যে পায়ের ধুলো পরেনি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো। অথচ পশ্চিমবঙ্গে নারী নির্যাতনের ঘটনায় সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অতি-সক্রিয়তা চোখে পড়ার মতো। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে এবং তৃণমূল দল এই ইস্যুতে আগাগোড়া সোচ্চার। এবারেও মমতাকে সোচ্চার হতে দেখা গেল লোকসভা নির্বাচনের আগে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *