ফের আন্দোলনে প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীরা

Read Time:3 Minute

24Hrs Tv ওয়েব ডেস্ক : প্রিয়াঙ্কা পাত্র : কিছুদিন আগেই SLST চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ধর্মতলা চত্বর উত্তাল হয়েছিল। এবার ধর্মতলায় মাতঙ্গিনীর পাদদেশে দেখা গেল 2014 প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভ। আন্দোলনের আজ 500তম দিন। কিন্তু তাঁদের দাবি, সরকারের তরফে কোনও সদর্থক পদক্ষেপ করা হয়নি। এই দিন তাঁরা নিজেদের গায়ে বেল্ট দিয়ে মেরে ও মুখে কালি মেখে প্রতিবাদ জানালেন ৷ একইসঙ্গে তাঁরা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, “নিয়োগ না হলে আসন্ন লোকসভায় তার ফল ভুগতে হবে । ভোট বাক্স’ই হবে তাঁদের প্রতি বঞ্চনার জবাব ।” এই দৃশ্যে বিরোধীরা রীতিমতো সরব ।আর এই দিনে তাঁরা দেহে চাবুক দিয়ে আঘাত করে প্রতিবাদ করল। গেরুয়া শিবিরের নেতারা রাজ্য শাসক দলকে তুলোধনা করতে শুরু করে দিয়েছে ইতিমধ্যে।

নিয়োগের দাবিতে এদিন রাস্তায় মুখে কালি মেখে বসে থাকতে দেখা যায় TET পরীক্ষার্থীদের। চাকরিপ্রার্থীদের দাবি, ‘রোদ-বৃষ্টি-ঝড় উপেক্ষা করে আমরা আন্দোলন করে যাচ্ছি। চাকরির জন্য মুখ্যমন্ত্রী-শিক্ষামন্ত্রীর কাছে দরবারও করেছি। কিন্তু, কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ করা হয়নি।’ আবেদনকারীরা বলেন, ‘আমরা বছরের পর বছর অপেক্ষা করে চলেছি। আর কবে চাকরি পাব! সরকারের কাছে আবেদন জানিয়ে জানিয়ে আমরা ক্লান্ত। এখন এই পন্থা ছাড়া আমাদের কাছে কোনও উপায় নেই। এমনকি তাঁরা আরও বলেছেন,”প্রয়োজনে দু ঘা চাবুক মারুন, কিন্তু আমদের চাকরি ফিরিয়ে দিন । এই ভাবে ভাতে মারবেন না।”

প্রসঙ্গত, দুটো টেট ইতিমধ্যেই হয়েছে । 2023 ও 2024 সালে দু’বার পরীক্ষা হয়েছে । তবে এখনও চাকরি মেলেনি 2014 টেট উত্তীর্ণদেরও। 2020 সালে নভেম্বর মাসে সাংবাদিক সম্মেলন করে তাঁদের চাকরির কথা বলা হলেও এখনও পর্যন্ত তাঁরা চাকরি পাননি বলে দাবি আন্দোলকারীদের। অন্য দিকে, কেন্দ্রীয় তদন্তকারীদের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে মন্ত্রী থেকে পর্ষদ সভাপতি একাধিক ব্যক্তি। আর এই সবের মধ্যেই ১ লাখ 20 হাজার শিক্ষককে স্থায়ী করেছে বিহার সরকার। কিন্তু এখনও বাংলায় যোগ্য চাকরিপ্রার্থীরা তাঁদের হকের চাকরির দাবিতে দিন কাটাচ্ছেন খোলা আকাশের নীচে বসে। আন্দোলন করতে হচ্ছে দিনের পর দিন মাসের পর মাস। কেউ কেউ খালি গায়ে কড়া শীতে রাস্তায় শুয়ে প্রতিবাদ করছেন, আবার কেউ নিজের রক্ত দিয়ে লিখে নিয়োগের দাবি করছেন। তাঁরা বলেন, হকের চাকরি পেলে এতদিনে তাঁদের সংসার আরও সুন্দর হত ৷ দু’বার করে প্রত্যেকে ইন্টারভিউ দিয়েও নিয়োগ পাননি বলে অভিযোগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *