শাহজাহানের গ্রেফতারি ইস্যু, রাজ্যকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে রিপোর্ট তলব রাজ্যপালের

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি: কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টি এস শিবঞ্জানমের ডিভিশন বেঞ্চ সোমবারই জানিয়েছিলেন, সন্দেশখালির ‘নিখোঁজ’ ত়ৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখের গ্রেফতারিতে কোনও স্থগিতাদেশ দেয়নি আদালত। তাই রাজ্যের পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করতে পারবে। সংবাদ সংস্থায় প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, সোমবার রাতেই শাহজাহানের দ্রুত গ্রেফতারি চেয়ে রাজ্যকে চিঠি লিখেছেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। রাজভবনের তরফে আনুষ্ঠানিক ভাবে এই চিঠির বিষয়ে কিছু জানা না গেলেও, এক সরকারি আধিকারিককে উদ্ধৃত করে এমনটা জানা গিয়েছে।

চিঠিতে রাজ্যপাল রাজ্যের উদ্দেশে লিখেছেন, যদি প্রশাসন শাহজাহানকে ধরতে ব্যর্থ হয়, তবে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রাজভবনে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। তা ছাড়াও সন্দেশখালিতে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে এক শিশুকে ছুড়ে ফেলে দেওয়ার যে অভিযোগ উঠেছিল, তার প্রেক্ষিতে রাজ্যকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যপাল। তদন্তের রিপোর্ট রাজভবনে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম বলেন, ‘স্পষ্ট ভাবে বলছি, পুলিশকে কোনও নির্দেশ দেওয়া হয়নি। ইডির মামলায় সিট গঠনের ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছিল। আমরা পুলিশকে বলিনি যে, গ্রেফতার করা যাবে না’।

প্রসঙ্গত, গত ১০ ফেব্রুয়ারি সন্দেশখালিতে শিশুর ওপর অত্যাচারের অভিযোগ ঘিরে শোরগোল পরে গিয়েছিল। এক শিশুকে তার মায়ের কোল থেকে কেড়ে নিয়ে ছুড়ে ফেলা হয়েছিল বলে অভিযোগ। সন্দেশখালির বাসিন্দা ভুজঙ্গ দাসের স্ত্রী সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছিলেন, ‘মুখে কালো কাপড় বেঁধে পুলিশ এসেছিল। বাইরে থেকে আমার স্বামীকে ডাকছিল। দরজা না খোলায় গালাগালি করে। সন্দেশখালি থানার এক জন ছিল। ওরা আমার কোল থেকে বাচ্চা ফেলে দিয়েছিল। আমার চুলের মুটি ধরে টানে। এমনকি পুরুষ পুলিশ নাইটি টেনেছিল’। অভিযোগ ওঠার পরেই অভিযোগকারিণীর বাড়িতে যান রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের প্রতিনিধিরা। শিশুটির চিকিৎসার বন্দোবস্তও করা হয়েছে বলে জানান তাঁরা। এবার এই ঘটনায় রিপোর্ট চেয়ে পাঠাল রাজভবন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *