রাজ্যপালকে পেয়ে ‘ওরা যদি ফিরে আসে’! শাহজাহান বাহিনী নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ আতঙ্কিত মহিলাদের

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি : ‘ওরা যদি ফিরে আসে’! কেরল থেকে তড়িঘড়ি সন্দেশখালি এসে আতঙ্কিত-সন্ত্রস্ত্র মহিলাদের কাছে শুনলেন ওই ভয়ঙ্কর অভিঞ্জতা রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস । রাজ্যপালের পায়ে পড়লেন সেখানকার আতঙ্কিত মহিলারা। হাতে রাখিও পরিয়ে গ্রামের মহিলারা বলেই দিলেন, ‘আপনারা চলে গেলে আমাদের যে অবস্থা হবে তা আরও ভয়ঙ্কর হবে। আমরা এরপর মুখ তুলে তাকাতে পারব না। ১৩ বছর ধরে যা অত্যাচার হচ্ছে, তার থেকেও ভয়ঙ্কর হবে’। সোমবার এভাবেই খন্ড খন্ড চিত্রে রাজ্যপালকে ধরা দিল শেখ শাহজাহান বাহিনীর অত্যাচারের কাহিনী।

হাতজোড় করে দাঁড়াতে দেখা গেল মহিলাদের রাজ্যপালের সামনে। কি বললেন সন্দেশখালির আতঙ্কিত মহিলারা? আতঙ্কিত মহিলাদের মোদ্দা কথা, ‘রাজ্য পুলিশের ওপর তাঁদের ভরসা নেই। সুরক্ষার জন্য় কেন্দ্রীয় পুলিশের দাবি জানিয়েছেন। সন্দেশখালিতে পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগও করা হয়েছে রাজ্যপালকে’। এদিন রাজ্যপাল পৌঁছনোর আগেই দেখা যায় রাস্তায় প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছেন মহিলারা। কোনও প্ল্যাকার্ডে কেন্দ্রীয় পুলিশের দাবি জানানো হয়েছে। কোথাও রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে রয়েছে অভিযোগ। ‘কীভাবে মহিলাদের ডেকে পাঠানো হতো। কীভাবে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ রাখা হতো, কীভাবে পরিবারের ক্ষতি করানোর ভয় দেখানো হতো’, রাজ্যপালের সামনে তুলে ধরেন ভুক্তভোগী মহিলারা। স্থানীয় পুলিশ কোনও অভিযোগ নেয় না বলে রাজ্যপালের কাছে অভিযোগে সরব হন স্থানীয় মহিলারা। সমস্ত অভিযোগ শোনেন রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস। যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। গ্রামের মহিলাদের সুরক্ষিত রাখার জন্য়, নিরাপদে রাখার জন্য যা যা করার করবেন এমকই আশ্বাস শোনা গিয়েছে এদিন রাজ্যপালের তরফ থেকে। সন্দেশখালি কাণ্ড নিয়ে রাজ্যপাল আগেই বলেছিলেন ‘ননসেন্স গেম চলছে’। এদিন কার্যত মহিলাদের অভিযগের পালা ওই ননসেন্স গেমকেও ছাপিয়ে গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *