ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাকরেঁর হাতে রামমন্দিরের রেপ্লিকা, কটাক্ষ মহুয়ার

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv: নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাকরেঁর একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে হিন্দুত্বের ইস্যুতে খোঁচা দিতে চাইলেন লোকসভায় তৃণমূলের বহিষ্কৃত সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তাঁর ওই এক্স পোস্ট নিয়ে পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিজেপিও।

মহুয়া যে ভিডিয়োটি পোস্ট করেছেন, তাতে দেখা যাচ্ছে মাকরেঁর বাঁ হাতে রয়েছে রামমন্দিরের প্রতিরূপ (রেপ্লিকা)। তিনি সেটা ঘুরিয়ে দেখছেন। আর ফরাসি প্রেসিডেন্টের ডান হাতের তালু ধরে রয়েছেন মোদী। ওই ভিডিয়ো পোস্ট করে মহুয়া লিখেছেন, ‘এক জন বিদেশি রাষ্ট্রনেতা বাঁ হাতে রামমন্দিরের রেপ্লিকা ধরে রয়েছেন। সেটাকে খেলার ছলে ঘোরাচ্ছেন। আর তাঁর ডান হাত দখল করে রেখেছেন মোদীজি। দু’মিনিট নীরবতা তাঁদের জন্য, যাঁরা এখনও তাঁকে (মোদী) হিন্দুত্বের চ্যাম্পিয়ন হিসাবে মনে করেন।’

রাজ্য বিজেপির প্রধান মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য পাল্টা বলেন, ‘মহুয়া মৈত্র বিদেশের ব্যয়সায়ীকে সাংসদের ব্যক্তিগত লগইন আইডি-পাসওয়ার্ড পাঠিয়েছিলেন। সেটা তিনি কী বোর্ডে কোন হাত দিয়ে টাইপ করেছিলেন আগে মনে করুন। হিন্দুত্ব নিয়ে তাঁর না ভাবলেও চলবে।’

বৃহস্পতিবার মোদী ও ফরাসী প্রেসিডেন্ট মাকরেঁর সাক্ষাৎ হয় রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরে। সন্ধ্যায় জয়পুরের রাস্তায় রোডশো করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট। তার পর মাকরেঁর হাতে রামমন্দিরের প্রতিরূপ তুলে দেন মোদী।

গত ২২ জানুয়ারি অযোধ্যার রামমন্দিরে রামলালার ‘প্রাণপ্রতিষ্ঠা’ করেছেন মোদী। পদ্ম শিবির নিজেদের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি পূরণ করে নির্বাচনে ঝাঁপানোর প্রস্তুতি নিয়েছে। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, অত্যন্ত হিসেব করেই তাঁরা এই সময়টাকে বেছে নিয়েছে রামমন্দির উদ্বোধনে। নির্বাচনের মুখে মন্দির সাধারনের জন্যে খুলে দিয়ে এর থেকে ডিভিডেন্ড নেওয়াটাই লক্ষ্য। এটার জন্যে রাজনৈতিক বোদ্ধা হওয়াটা বাধ্যতামূলক নয়।

যাকে অনেকে বলছেন ভারতের ইতিহাসে প্রথম পাঁচটি মোড় ঘোরানোর ঘটনার মধ্যে একটি। রাজনৈতিক মহলে এ-ও আলোচনা রয়েছে, ২০২৪-এর ভোটে রাম-হাওয়াকে ঝড়ে পরিণত করতেই এই সময়টাকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। যদিও বিজেপি তথা গেরুয়া শিবির গোড়া থেকেই বলে এসেছে, এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। মহুয়া সেই হিন্দুত্ব নিয়েই কটাক্ষ ছুড়তে চাইলেন মোদী তথা বিজেপির দিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *