শাহজাহান ইস্যুতে তৃণমূলের অন্দরেই কি দুই ধরনের অবস্থান ?

Read Time:2 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি :আগামী শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি শেখ শাহজাহানের আগাম জামিন মামলার শুনানি। ব্যাঙ্কশাল আদালতে ইডির বিশেষ আদালতে বিচারপতির এমনই নির্দেশ। মঙ্গলবার সন্দেশখালিকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড শেখ শাহজাহান অন্তরালে থেকেই আগাম জামিনের আবেদন করেন। ঘটনার ২৫ দিন কেটে গেলেও এখনও অধরা সন্দেশখালির ‘বাঘ’। এরই মধ্যে শাহজাহান ইস্যুতে তৃণমূলের অন্দরে দুই ধরনের অবস্থান সামনে এসেছে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ফিরহাদ হাকিমের বক্তব্যে।

সোমবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘যে ঘটনাটা সেদিন তার বাড়ির বাইরে ঘটেছে, এটা কে ঘটিয়েছে তো তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না। এবং কেস তো বিচারাধীন। ইতিমধ্য়েই ইডিও মামলা করেছে, ইতিমধ্য়ে সিট গঠন করে তদন্ত হচ্ছে, তো যতক্ষণ না তদন্তে কোনওরকম কোনও ফয়সালা হচ্ছে, আমি কী করে বলতে পারি এর পিছনে কে আছে? আমি তো গণৎকার নই, জ্যোতিষ নই।’

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক প্রশ্ন তোলেন, শেখ শাহজাহান কী করেছে? গত ৫ জানুয়ারি রেশন কেলেঙ্কারির তদন্ত-অভিযানে গিয়ে রক্তাক্ত হন ইডির আধিকারিকরা। এদিন, রীতিমতো, তাড়া করে মারতে মারতে, এলাকা ছাড়া করা হয় কেন্দ্রীয় বাহিনীর সশস্ত্র জওয়ানদের! পরপর গাড়িতে ভাঙচুরও করা হয়। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে রেহাই পায়নি সংবাদমাধ্য়মও। সেদিনের সেই ভয়াবহ ঘটনা নিয়ে অভিষেকের মন্তব্য, ‘শেখ শাহজাহান কী করেছে? আমি তো সেদিন, যেদিন ঘটনা ঘটেছে শেখ শাহজাহান ছিল বলে আমার জানা নেই। কিছু লোকের বিক্ষোভ আমি দেখতে পেয়েছি। আমি জানি না। তবে যে ঘটনাটা ঘটেছে অনভিপ্রেত।’

শেখ শাহজাহানের বাড়ির সামনে ইডির ওপর হামলা নিয়ে, ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, সন্দেশখালিতে যেটা হয়েছে অন্যায় হয়েছে। যা দেখলাম টিভিতে মাথা ফাটিয়েছে। অন্যায় করেছে।ফিরহাদ ও অভিষেকের বক্তব্যে শেখ শাহজাহান ইস্যুতে তৃণমূলের অন্দরেই কি দুটি ভিন্ন মত রয়েছে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *