‘বিজেপি সিআইএসএফকে নিয়ন্ত্রণ করছে’ কমিশনের ফুল বেঞ্চের কাছে নালিশ তৃণমূলের

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি: এখনও নির্বাচনী নির্ঘন্ট ঘোষণা করেনি জাতীয় নির্বাচন কমিশন। ইতিমধ্যেই রাজ্যে পা রেখেছে ১০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। রবিবারই রাজ্যে এসেছে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ। এরই মধ্যে সোমবার তৃণমূল-সহ রাজ্যের মোট আটটি রাজনৈতিক দলের বৈঠক করে তাদের বক্তব্য শোনে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

রাজ্যে এক দফায় লোকসভা নির্বাচন হোক। এদিন নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চের সঙ্গে দেখা করে এমনই দাবি দাবি জানালো তৃণমূল প্রতিনিধি দল। এই প্রতিনিধিদলে ছিলেন লোকসভার সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন এবং তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী।

এদিন নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করে রাজ্যে একদফা ভোট করার দাবি জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করে বেরিয়ে শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমরা বলেছি, কেন পশ্চিমবঙ্গে এক দিনে ভোট হবে না? যদি বিজেপি শাসিত রাজ্যে এক দিনে ভোট হয়, তবে এ রাজ্যে নয় কেন?” কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়েও নিজেদের ক্ষোভের কথা তুলে ধরেছে তৃণমূল। কল্যাণ বলেন, “সিআইএসএফকে মানুষ ভয় পাচ্ছে। কারণ বিজেপি নেতারা যা বলছেন, তাই করছে সিআইএসএফ। বিজেপি যাতে সিআইএসএফকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে, কমিশনকে তা দেখার অনুরোধ জানিয়েছি।” কল্যানের অভিযোগ, ছয়-সাত দফায় নির্বাচন করানো হবে, কেবল নরেন্দ্র মোদি, অমিত শা’র মতো বিজেপি নেতাদের প্রচারে সুবিধা করে দেওয়ার জন্য।

নির্ভয়ে মানুষ যাতে ভোট দিতে পারে, বেঞ্চের কাছের তা সুনিশ্চিত করার দাবি জানায় বিজেপি। কংগ্রেসের তরফে গত পঞ্চায়েত ভোটে ‘হিংসার’ প্রসঙ্গ উত্থাপন করে নির্বাচনে যথোপযুক্ত নিরাপত্তার দাবি জানানো হয়। সিপিএমের তরফে কমিশনকে আর্জি জানানো হয়, রাজ্যের অভিযুক্ত প্রশাসনিক এবং পুলিশ আধিকারিকদের যেন নির্বাচনের কাজে নিযুক্ত না করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *