জাতীয় সুরক্ষার প্রশ্ন তুলে ‘বিজেপি সাংসদ ‘বহিষ্কারের দাবী তৃণমূলের

Read Time:2 Minute

24Hrs Tv ওয়েব ডেস্ক : রেশমি খাতুন : বলা নেই কওয়া নেই যেন এক উঠকো ঝামেলা এসে হাজির , তাও আবার কোথাও নয় , একেবারে পার্লামেন্টে , স্বয়ং লোকসভায় যেখানে আইন প্রনয়ন হয় সেখানেই আইন ভঙ্গ ? হ্যাঁ এমন বিরলতম ঘটনার সাক্ষ্মী থাকলো লোকসভা। সবাই যখন বৈঠকে বিভোর ঠিক সেই সময় হঠাৎ করে পেছনের আসন থেকে লাফিয়ে উঠলেন এক অজ্ঞাতপরিচয়ের ব্যক্তি। হাতে কিছু একটা নিয়ে এক আসন থেকে অন্য আসন লাফ দিয়ে দৌড়োতে দেখা গেল। বোমা নাকি অন্যকিছু এই নিয়ে যখন ভীত সন্ত্রস্ত সবাই তখন লোকসভা ভরে উঠলো ধোঁয়ায়। এরপর শুরু হল শোরগোল। কোথায় নিরাপত্তারক্ষী? ‘ পাকড়ো পাকড়ো ‘ বলে চেঁচিয়ে উঠলো সবাই। যে যেদিকে পারলো দৌড়োতে থাকল। পরবর্তীকালে নিরাপত্তারক্ষীরা এসে দরে ফেলে। জানা যায় ধৃতরা সবাই বহিরাগত। ইতিমধ্যেই ৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন মন্ত্রী শশী পাঁজা থেকে শুরু করে মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য। শশী পাঁজা জানিয়েছেন যে ‘ লগ ইন আইডি শেয়ার করার অভিযোগে বিঘ্নিত হয়েছে জাতীয় নিরাপত্তা। সেইজন্য মহুয়া মৈত্রকে বহিষ্কার করেছে সংসদ। আজকের ঘটনাতেও বিঘ্নিত হয়েছে জাতীয় নিরাপত্তা। সংসদের ভিতর যে দুজন ঢুকে পড়েছিল, তাদের ভিজিটর পাস দিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ। কেন সেই বিজেপি সাংসদকে বহিষ্কার করা হবে না ? প্রশ্ন শশী পাঁজার। ‘ পাশাপাশি মুখ খুলেছেন শমীক ভট্টাচার্য। তিনি জানিয়েছেন সমস্ত বিধায়করা পাস দিয়ে থাকেন, সাংসদরাও দিয়ে থাকেন , এতে মহুয়া মিত্রের সঙ্গে কোন সম্পর্ক নেই।’ আবার এই নিয়ে মুখ খুলেছেন কল্যান বন্দোপাধ্যায়। জানিয়েছেন ‘দেশ বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহের হাতে ,যা হয়েছে সব নরেন্দ্র মোদীর জন্য হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *