দিল্লির রাস্তায় কাঁটাতার,পেরেক! কৃষকদের রুখতে সক্রিয় প্রশাসন

Read Time:3 Minute

24Hrs Tv ওয়েব ডেস্ক : মঙ্গলবার দিল্লি যাত্রার ডাক দিয়েছেন পঞ্জাব, হরিয়ানার হাজার হাজার কৃষক মঙ্গলবার দিল্লি যাওয়ার ডাক দিয়েছেন। তার আগেই হরিয়ানা সরকার তৈরি করল দুটি বড় স্টেডিয়ামে অস্থায়ী জেল। অস্থায়ী জেলে রূপান্তরিত করা হয়েছে সিরসার চৌধুরি দলবীর সিংহ ইন্ডোর স্টেডিয়াম এবং ডাবওয়ালির গুরু গোবিন্দ সিংহ স্টেডিয়ামকে। ওই দিন দেশের কৃষকেরা একাধিক দাবি নিয়ে পথে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সূত্রের খবর, মিছিল নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার সময় যদি কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হয় তাহলে তাঁদের আটক করে ওই দু’টি জেলে রাখা হবে বলে ।

অন্যান্য জেলা থেকে কৃষকরা যাতে মিছিল নিয়ে হরিয়ানায় ঢুকতে না পারেন, সেই উদ্দেশ্যে রাস্তায় ব্যারিকেড বসানোর কাজ থেকে শুরু করে রাজ্যের সীমানায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। হরিয়ানার রাজ্য সরকার অতিরিক্ত ৫০ কোম্পানি পুলিশ মোতায়েন করেছে। হরিয়ানা সরকারের পক্ষ থেকে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার বিজ্ঞপ্তিও জারি করেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অশান্তি এড়াতে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত মোবাইলের ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ থাকবে অম্বালা, কুরুক্ষেত্র, কইথাল, জিন্দ, হিসার, ফতেহাবাদ এবং সিরসা জেলায়। শুধু মাত্র ‘ভয়েস কল’ করতে পারবেন গ্রাহকেরা।

বিক্ষোভকারীদের নিয়ে সতর্ক দিল্লিও। কৃষকদের মিছিল নিয়ে দিল্লির সীমান্তে জায়গায় জায়গায় তৈরি করা হয়েছে কংক্রিটের দেওয়াল। শুধু নয় বসানো হয়েছে কাঁটাতারের বেড়া এবং পেরেকের পাটাতন। কৃষকদের দিল্লিতে ঢুকতে বাধা দেওয়ার জন্য মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। কেন্দ্রের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে বিরোধী দল এবং কৃষক সংগঠনগুলি সমালোচনা করেছে রীতিমধ্যে।

উল্লেখ্য, গোটা দেশ উত্তাল হয়ে উঠেছিল ২০২০ সালে কৃষক বিক্ষোভে। সেই বছর লাগাতার আন্দোলন চলেছে উত্তর ভারতের রাজ্যগুলিতে। শেষ পর্যন্ত সেই আন্দোলনের জেরে পিছু হটেছিল নরেন্দ্র মোদী সরকার। প্রত্যাহার করা হয়েছিল ‘বিতর্কিত’ কৃষি বিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *