ইডি’র আধিকারিকদের বৈঠক, কেন ?

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv ওয়েব ডেস্ক : কোয়েল বনিক : রেশন দুর্নীতির তদন্তে রক্তাক্ত হন ইডি আধিকারিকেরা। বিপদের মুখে পরে সংবাদমাধ্যমও। তার’ই পরিপ্রেক্ষিতে জোন ওয়ান ও জোন টু সিনিয়ার আধিকারিকেরা হাজির হবেন এই বৈঠকে। ইডিআধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক ইডি ডিরেক্টরে’র। রীতিমত পৌঁছে গেছে ইডির ডিরেক্টর রাহুল নবীন। আর কিছুক্ষণের মধ্যে শুরু হবে এই বৈঠক। সল্টলেক-এঁর সিজিও কমপ্লেক্সে এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবে জোন ওয়ান ও জোন টু আধিকারিকেরা। সুত্রের খবর, এই বৈঠক’টি রেশন দুর্নীতি সম্পর্কিত ও বনগাঁ,সন্দেশখালি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে। এছাড়াও বর্তমানে উঠে এসেছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের চিঠির কথা। জানা যায়, হাসপাতালে থাকাকালিন প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী চিঠি লিখেছিলেন একাধিক ব্যাক্তির নাম। যেখানে লেখা ছিল কার কাছ থেকে ঠিক কত টাকা নেওয়া হবে। সেই চিঠি’তে নাম ছিল শেখ শাহাজান থেকে শুরু করে শঙ্কর আঢ্য-সহ একাধিক নাম। এঁর পাশাপাশি সমস্ত দুর্নীতি, রেশন থেকে শুরু করে নিয়োগ দুর্নীতি এই সমস্ত বিষয় নিয়ে ইডি আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ইডি ডিরেক্টর ‘রাহুল নবীন’।

সন্দেশখালির ঘটনা রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকাজুড়ে। কিছুদিন আগেই রেশন দুর্নীতির তদন্তে তৃনমূলের শেখ শাহাজান বাড়িতে যান ইডি আধিকারিকে’রা। তার সাথে ছিল crpf জওয়ানেরা এবং সংবাদমাধ্যমও। তবে, বেশ কিছুক্ষণ ধরে দরজা ধাক্কা দেওয়ার পরও কোনোরকম গেট না খোলায় তালা ভাঙ্গতে বাধ্য হয়। তারপর হয় বিপত্তি। রক্তাক্ত অবস্থা হয় ইডি আধিকারিকদের। সমস্যার মুখোমুখি হয় সংবাদমাধ্যম সাংবাদিক থেকে শুরু করে চিত্র সাংবাদিকরাও। এই ঘটনার পর থেকে এখনও নিখোঁজ শেখ শাহাজাহান। শেখ শাহাজানের ভাই কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানেনা বলে দাবি করেন তার ভাই। তবে, এখন শাহাজানের মিসিং ডায়েরি করতে নারাজ তার দাদা। শুক্রবার, ঠিক এই দিনেই রেশন দুর্নীতির মামলায় নাম জড়িয়ে পরে শঙ্কর আঢ্যের নাম। ইডি সূত্রে খবর, একাধিক সংস্থার মধ্যে একটি সংস্থা রয়েছে যার নাম ”শঙ্কর আঢ্য ফরেক্স ট্রেনিং প্রাইভেট লিমিটেড”। সেই সংস্থার মাধ্যমে সেই টাকা ঘুরিয়ে বিদেশি মুদ্রা কেনা হয়েছে এমন’ই অভিযোগ। ইডি আধিকারিকদের দাবি, বেশ কিছু প্রমান ও নথি রয়েছে তাদের কাছে। প্রায় ১৭ ঘণ্টা তল্লাশির পর গ্রেফতার বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *