রাজনীতি থেকে অভিনয় জগতে রাজন্যা

Read Time:4 Minute

24 Hrs Tv ওয়েব ডেস্ক : সৌরভ দত্ত : অভিনয় জগতের অনেকেই রাজনীতির ময়দানে পা দিয়েছেন, এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটে। কেউ কেউ বয়স কালে, কেউ কেউ আবার কম বয়সেই রাজনীতিতে অসেন। ভোটের ময়দানে লড়াই করেছেন এমন তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম কম নেই। টলি পাড়ার অনেক অভিনেতাই এখন রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত।
কেউ শাসক দলের শিবিরে, কেউ আবার বিরোধী শিবিরে নাম লিখিয়েছেন। তবে একজন রাজনীতিক অভিনয় জগতে পা রেখেছেন, এমন উদাহরণ খুব একটা চোখে পড়ে না। বাংলা রাজনীতির তরুণ তুর্কিদের মধ্যে জনপ্রিয় যুব তৃণমূল নেত্রী রাজন্যা হালদারের অভিনীত প্রথম ছবি মুক্তি পেতে চলেছে খুব শিগগির। রাজন্যা হালদার, পিএইচডি স্কলার। প্রেসিডেন্সি থেকে স্নাতক পাশ করেছেন। দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার সোনারপুরের মেয়ে রাজন্যা ছোট থেকেই রাজনৈতিক পরিবেশে বড় হয়েছেন। দাদু কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, তাঁর বাবাও কংগ্রেস করতেন, পরে তৃণমূলের হাত ধরেন। ২০১৭ সাল থেকে সক্রিয় রাজনীতি শুরু করেছেন রাজন্যা। এখন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ছাত্র যুব সংগঠনের সহ সভাপতি। পাশাপাশি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের নতুন ইউনিটের সভাপতিও রাজন্যাই।
২০২৩ সালের ২১ জুলাইয়ের মঞ্চে তাঁর ঝাঁঝাল বক্তৃতা নজর কেড়েছিল সকলের। সেদিনের আগে রাজনৈতিক পরিসরে তাঁকে কেউ খুব একটা চিনতেন না। ২০ জুলাই তৃণমূলের ‘শহিদ দিবস’-এর প্রস্তুতি দেখতে গিয়ে রাজন্যার গান ও কথা শোনেন দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তত্‍ক্ষণাত্‍ তিনি ঠিক করে দেন ২১ জুলাইয়ের মঞ্চে বক্তৃতা রাখবেন রাজন্যা। মমতার নির্দেশে ২১ জুলাইয়ের মঞ্চে বক্তৃতার তালিকায় নাম রাখা হয় রাজন্যার। তারপর মঞ্চে উঠে জ্বালাময় বক্তৃতা করেন রাজন্যা। সাধারণ কর্মী-সমর্থক তো বটেই, তৃণমূল নেতৃত্বের মধ্যেই অনেকে খোঁজখবর শুরু করে দেন রাজনীতিতে ‘নবাগতা’র। তারপর ছাত্র রাজনীতিতে অনেক গুরু দায়িত্ব দেওয়া হয় রাজন্যাকে।

রাজনীতির পাশাপাশি রাজন্যা একাধিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িয়ে আছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৈরির করা জয়ী বাংলা ব্যান্ডেও রাজন্যাকে নিয়মিত গান গাইতে দেখা যায়। এবার সিনেমাজগতেও দেখা যাবে তাঁকে। প্রান্তিক চক্রবর্তী পরিচালিত ‘১৯৪৫: বিহাইন্ড দ্য মাউন্টেনস’ ছবিতে অভিনয় করেছেন রাজন্যা।
সোমবারই এই ছবির পোস্টার বের হয়। সেখানেই দেখা গেছে রাজন্যাকে। জানা গেছে, স্বাধীনতা সংগ্রামী পুতলি তামাংয়ের জীবনের আধারে তৈরি করা এক গল্পের ওপর ভিত্তি করে প্রান্তিক ছবিটি তৈরি করেছেন। সেই ছবিতে পুতলির ভূমিকাতেই দেখা যাবে রাজন্যাকে। তিনি ছাড়াও এই ছবিতে অভিনয় করেছেন, সাংবাদিক ঋতব্রত ভট্টাচার্য, রিয়া ভুজেল-সহ একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রী।
২৬ জানুয়ারি, প্রজাতন্ত্র দিবসের বড় পর্দায় মুক্তি পাবে এই ছবিটি। নির্মাতাদের দাবি, ছবিটি মানুষ বেশ পছন্দ করবেন। রাজন্যার অভিনয়ে মুগ্ধ সকলেই। জানা গেছে, বিনা পারিশ্রমিকেই ছবিতে অভিনয় করেছেন রাজন্যা। এখন দেখার ছাত্র রাজনীতি করা এই নেত্রীর অভিনয় কতটা দাগ ফেলতে পারে সাধারণ দর্শকের মনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *