আফস্পা প্রত্যাহার নিয়ে শাহি ঘোষণা

Read Time:3 Minute

24 Hrs Tv:নিজস্ব প্রতিনিধি: লোকসভা নির্বাচনের মুখে জম্মু-কাশ্মীর থেকে আর্মড ফোর্সেস স্পেশাল পাওয়ার অ্যাক্ট বা আফস্পা (AFSPA) প্রত্যাহার করার বিষয়ে বড় ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সংবাদমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, উপত্যকা থেকে আফস্পা আইন তুলে নেওয়া নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে। পাশাপাশি তিনি জানান, জম্মু এবং কাশ্মীর থেকে সেনা প্রত্যাহার এবং রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার দায়িত্ব পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার বিষয়ে তাদের পরিকল্পনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, কেন্দ্র শাসিত জম্মু-কাশ্মীরে লোকসভা নির্বাচন হচ্ছে না।

শাহ জানান, সেপ্টেম্বরের আগেই জম্মু ও কাশ্মীরে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই রাজ্যে গণতন্ত্র রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ভারতের প্রত্যেক নাগরিকের গণতান্ত্রিক অধিকার আছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, গত পাঁচ বছরে জম্মু ও কাশ্মীরের ছবি পাল্টেছে। মেহবুবা মুফতি এবং ফারুক আবদুল্লাহর শাসনকালে একাধিক ভুয়ো এনকাউন্টার হত। কিন্তু গত পাঁচ বছরে জম্মু ও কাশ্মীরে একটিও ভুয়ো এনকাউন্টার হয়নি। উল্টে যাঁরা এই সব কাজের সঙ্গে যুক্ত তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সন্ত্রাসমূলক কাজকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে ১২টি সংগঠনকে মোদি সরকার নিষিদ্ধ করেছে বলেও জানান তিনি। পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর (পিওকে) নিয়ে শাহ’র বক্তব্য, সকলকে মনে রাখতে হবে পিওকে ভারতেরই অংশ।

প্রসঙ্গত, জঙ্গি তৎপরতা মোকাবিলায় সেনাবাহিনীর হাতে বাড়তি ক্ষমতা তুলে দিতে ১৯৫৮ সালে আফস্পা জারি করেছিল কেন্দ্র। শুধু জম্মু ও কাশ্মীর নয়, উত্তর-পূর্ব ভারতের কয়েকটি রাজ্যেও আফস্পা বলবৎ করা হয়। বছর দুই আগে নাগাল্যান্ড, মণিপুর এবং অসমের একাংশ থেকে আফস্পা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয় নরেন্দ্র মোদি সরকার। গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইতিমধ্যেই উত্তর-পূর্ব ভারতের ৭০ শতাংশ এলাকা থেকে আফস্পা তুলে নেওয়া হয়েছে। এবার জম্মু ও কাশ্মীরের ক্ষেত্রেও তা কার্যকর হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *