শ্রদ্ধাকে দু’বছর আগেই হুমকি আফতাবের, সেই তথ্য উঠে এল পুলিশি তদন্তে

Read Time:2 Minute

24Hrs Tv, ওয়েব ডেস্কঃ মঙ্গলবার দিল্লির নিম্ন আদালতে শ্রদ্ধাকে খুনের কথা স্বীকার করেছে আফতাব আমিন পুণাওয়ালা। তিনি জানায় রাগের মাথায় গলা টিপে খুন করেছেন। শ্রদ্ধা দু’বছর আগেই আফতাবের নামে পুলিশে লিখিত অভিযোগ করেছিল, সূত্রের খবর। তিনই সেখানে লিখেছিলেন আফতাব তাঁকে মারধর করে। এমনকী কেটে টুকরো টুকরো করে ফেলবে বলেও হুমকি দেয় সে।
মহারাষ্ট্রের ভেসাই শহরতলিতে ২০২০ সালে একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে থাকতেন শ্রদ্ধা-আফতাব। সে বছর ২৩ শে নভেম্বর পুলিশকে অভিযোগ দায়ের করেন শ্রদ্ধা। আফতাবের পরিবারও এই বিষয়ে জানে। চিঠির কথা জানতে পেরেছে দিল্লি পুলিশ খুনের তদন্তে নেমে। সেই অভিযোগ পেয়ে ভাসাই পুলিশ কী ব্যবস্থা নিয়েছিল তাও খতিয়ে দেখছেন দিল্লির তদন্তকারীরা।
প্রসঙ্গত, শ্রদ্ধার বন্ধুরা আফতাবের নৃশংস আচরণের কথা জানিয়েছিলেন। জানা গিয়েছে, শ্রদ্ধার হোয়াটাসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামে পুরনো ছবিতে নাকে-মুখে মারধরের দাগ রয়েছে। অনুমান করা যাচ্ছে, যদিও এত কিছুর পরেও আফতাবকে খুনি প্রমাণ করা সহজ হবে না বলেই মত সরকারি আইনজীবীর। আফতাব আদালতে খুনের কথা স্বীকার করলেও জেলা শাসকের সামনে এই স্বীকারোক্তি করেনি, সূত্রের খবর।
উল্লেখ্য, ১৮ ই মে দিল্লির মেহেরৌলিতে প্রেমিকা শ্রদ্ধা ওয়াকারকে খুন করে তাঁর প্রেমিক তথা লিভ-ইন সঙ্গী আফতাব আমিন পুনাওয়ালা। আফতাব খুনের পর শ্রদ্ধার দেহ ৩৫টি টুকরো করে। দিল্লি শহরের বিভিন্ন জায়গায় তা ফেলতে থাকে সে। শ্রদ্ধার ভালোবাসার পরিণতি মর্মান্তিক হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *