ফের এনআরএসে ঝুঁকির অপারেশনে সাফল্য

Read Time:2 Minute

24Hrs Tv, ওয়েব ডেস্কঃ কলকাতার নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজে ছুটে এসেছিলেন কল্যাণীর যুবক। যুবকের গলা ফুঁড়ে ত্রিশূলের তীক্ষ্ম ফলা। সেই দেখেই শিউড়ে উঠেছিলেন চিকিৎসকরা। তড়িঘড়ি অপারেশন না করা হলে প্রাণ বাঁচানোই অসম্ভব, হাস্পাত সূত্রে খবর। ফলে ভোররাতেই ইএনটি বিভাগে ওটি রেডি করে ঝুঁকিপূর্ণ অস্ত্রোপচারে হাত লাগান চিকিৎসকদের একটি দল। সাফল্যের সঙ্গেই যুবকের গলা থেকে ত্রিশূলটি বের করে আনেন তাঁরা।
সময় তখন ভোর ৩টে। এক যুবক রক্তাক্ত অবস্থায় ছুটতে ছুটতে এনআরএসে আসেন। চিকিৎসকরা তাঁকে দেখেই চমকে ওঠেন। ত্রিশূলের ধারাল ফলা ঢুকে গিয়েছে তাঁর গলায়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর অপারেশনের ব্যবস্থা করা হয়। ইএনটি বিভাগের ডাক্তার সুতীর্থ সাহার নেতৃত্বে একটি মেডিক্যাল টিম তৈরি করা হয়। উপস্থিত ছিলেন এক অ্যানাস্থেশিস্ট-সহ আরও দুই ডাক্তার। জটিল অপারেশনে খুঁটিনাটি পরামর্শ দেন প্রণবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি কঠিন অস্ত্রোপচারে তাঁর গলা থেকে ত্রিশূলটি বের করা হয়, হাসপাতাল সূত্রের খবর। যুবকের গলার ক্ষত অনেকটা নির্মূল করা গিয়েছে, চিকিৎসকরা এমনটাই জানান। আপাতত তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে। আইসিইউ-তে রাখা হয়েছে তাঁকে। তড়িঘড়ি অপারেশনের সিদ্ধান্তেই প্রাণ বেঁচেছে যুবকের। তাঁর গলায় কীভাবে ওই ত্রিশূল ঢুকে গেল, সে বিষয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি। জ্ঞান ফিরলে এ বিষয়ে তাঁর থেকে জানতে চাইতে পারেন চিকিৎসকরা। একাধিকবার কলকাতার সরকারি হাসপাতালগুলিতে বহু ঝুঁকিপূর্ণ অপারেশন হয়েছে। ভোররাতে মেডিক্যাল টিম তৈরি করে এতটা সাফল্যের সঙ্গে ঝুঁকির অপারেশন কিছুটা নজিরবিহীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *