ফের তলব তৃণমূল কাউন্সিলর তথা বিধায়ক অদিতি মুন্সীর স্বামীকে

Read Time:3 Minute

24 HrsTv: নিজস্ব প্রতিনিধি:নিয়োগ ‘দুর্নীতি’ মামলায় বিধাননগর পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর তথা বিধায়ক অদিতি মুন্সীর স্বামী দেবরাজ চক্রবর্তীকে আবার তলব করেছে সিবিআই। জানান, তাঁকে আবার আগামী ৩১ জানুয়ারি হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। সে দিন বেশ কিছু নথিও দেবরাজকে নিয়ে যেতে বলেছে সিবিআই। বৃহস্পতিবার টানা সাড়ে ৭ ঘন্টা নিজাম প্যালেসে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার জিঞ্জাসাবাদের মুখোমুখি হন।

বৃহস্পতিবার দেবরাজ চক্রবর্তীর পাশাপাশি আর এক তৃণমূল কাউন্সিলর বাপ্পাদিত্য দাশগুপ্তকেও তলব করেছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। তিনিও সিবিআই দফতর থেকে বেরোন প্রায় একই সময়ে। তাঁকে আপাতত আর হাজিরা দিতে হচ্ছে না। বাপ্পাদিত্য জানান, আবার ডাকলে তিনি হাজিরা দিতে রাজি আছেন। তদন্তে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করবেন তিনি।

দেবরাজ বলেন, ‘নিয়োগ মামলায় আমার বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছিল। বুধবার নোটিস দিয়ে বৃহস্পতিবার আমাকে ডাকা হয়। আমার বাড়িতে ওরা কিছু নথি পেয়েছিল। সেগুলির ভিত্তিতে কয়েকটি তথ্য পরিষ্কার করে জানার ছিল ওদের। সেই নিয়ে কথা হয়েছে। এ ছাড়া, আরও কিছু নথি আমার থেকে চেয়েছে। ৩১ তারিখ আবার ডেকেছে। সে দিন এসে বাকি নথি জমা দিয়ে যাব।’ নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় তাঁর যোগাযোগের অভিযোগ নিয়ে দেবরাজ বলেন, ‘নিয়োগ বা বদলি সংক্রান্ত অভিযোগ প্রমাণভিত্তিক। আমি তদন্তে সহযোগিতা করেছি।’

বাপ্পাদিত্য জানান, সিবিআই দফতরে অধিকাংশ সময়েই তাঁকে বসিয়ে রাখা হয়েছিল। বলেন, ‘আমাকে যা প্রশ্ন করেছে, আমি তার উত্তর দিয়েছি। তদন্তে সহযোগিতা করেছি। আবার ডাকলে আবার আসব। আমার বাড়ি থেকে যে কাগজ পাওয়া গিয়েছে, তার ৮০ শতাংশের সঙ্গে নিয়োগের সম্পর্ক নেই। বেশির ভাগই বিভিন্ন ব্যক্তির বায়োডাটা। ১০ শতাংশের বেশি ছিল আয়করের রিটার্ন সংক্রান্ত কাগজ এবং ব্যাঙ্কের নথি। এ ছাড়া, ১০ শতাংশেরও কম ছিল অ্যাডমিট কার্ড। তাতে কেউ চাকরি পাননি।’ ইতিমধ্যে নিয়োগ মামলায় রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সহ বেশ কয়েকজন জেল হেফাজতে রয়েছেন। কেন্দ্রীয় তদন্তকারি সংস্থা দুর্নীতির শিকড়ে পৌছতে চাইছে। আর তাই সকাল ১১টা নাগাদ থেকে দুই তৃণমূল কাউন্সিলরকে জিঞ্জাসাবাদ করে  সিবিআই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *